Home / মিডিয়া নিউজ / মঞ্চে যে আনন্দ পাই, সিনেমায় সম্ভব নয়: মুনমুন

মঞ্চে যে আনন্দ পাই, সিনেমায় সম্ভব নয়: মুনমুন

করোনা মাহামারির কারণে দীর্ঘদিন স্টেজ শো বন্ধ ছিল। পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হওয়ায় কনসার্ট

বা স্টেজ শো আবার শুরু হয়েছে। ব্যস্ততা বেড়েছে পারফর্মারদের। স্টেজ শোতে নিয়মিত পারফর্ম

করতেন নব্বইয়ের দশকের চাহিদাসম্পন্ন নায়িকা মুনমুন। এখন আবারও মঞ্চে ফিরেছেন তিনি। তবে এ নিয়ে তার আক্ষেপ রয়েছে।

পাশের দেশ ভারতের জনপ্রিয় শিল্পীরা যেখানে নিয়মিত স্টেজ শো করে দর্শক মাতান সেখানে বাংলাদেশে কেন বিষয়টি বাঁকা চোখে দেখা হয়- প্রশ্ন মুনমুনের।
মুনমুন বলেন, ‘একটানা কাজ। স্টেজ শো, সিনেমার ডাবিং নিয়ে ব্যস্ত। ডাবিং শেষ করলাম ‘বউ জামাইয়ের লড়াই’। ঈদের পরই শুরু করবো ‘পুলিশ নাম্বার ওয়ান’। সিনেমার কাজ অনেক আগে থেকেই কমিয়ে দিয়েছি। একটানা কাজ করাতাম এক সময়। মঞ্চে কাজ করছি অনেক বছর। অনেকে আমাকে খাটো করার জন্য বলে- যাত্রাপালায় নাচি। আসলে যাত্রাপালার নাচ আমি কখনও করিনি। আমি কাজ করেছি গ্রাম্য মেলাগুলোতে। এসব মেলায় আমাদের ডিমান্ড আছে। আমাদের দর্শক দেখতে চান। এটা আমার ক্যারিয়ারের পার্ট। একজন শিল্পী মঞ্চে কাজ করতে পারেন, নাটকেও কাজ করতে পারেন। আমাদের দেশে একপেশে চিন্তা ভাবনা- নায়ক-নায়িকা শুধু সিনেমায় কাজ করবে?’

আক্ষেপ ঝরে পড়ে মুনমুনের কণ্ঠে। তিনি বলেন, ‘মঞ্চে সারা বাংলাদেশে আমাকে চেনে। সিনেমার কাজ বেড়ে গেলেও এখন ষ্টেজ শো ছাড়বো না। মঞ্চে যে আনন্দ আমি পাই, যে স্বাধীনতা থাকে তা সিনেমায় সম্ভব নয়। পারিশ্রমিকও সিনেমার থেকে বেশি।’

মুনমুনকে এখন আর সিনেমার পর্দায় দেখা যায় না। মাঝে বেশ কিছু সময় অন্তরালে ছিলেন। সম্প্রতি কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। সিনেমাগুলো মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। চলচ্চিত্রে খুব বেশি কাজ না করলেও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মঞ্চে নিয়মিত পারফর্ম করেন তিনি। টেকনাফ, তেঁতুলিয়াসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পারফর্ম করেছেন বলে জানান এই অভিনেত্রী।

মুনমুন বলেন, ‘আমি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পারফর্ম করেছি। হাজার হাজার দর্শকদের সামনে আমি পারফর্ম করেছি। তাদের ভালোবাসা আমি কাছ থেকে দেখেছি। বিশেষ করে নারী দর্শকদের ভালোবাসা বেশি পেয়েছি। কারণ সিনেমায় আমি সাপের নাচ বেশি করেছি। নারী দর্শক সাপের এই নাচগুলোই দেখতে বেশি পছন্দ করেন। আমি এ বিষয়গুলো উপভোগ করি।’

মঞ্চ দাঁপানো প্রসঙ্গে মুনমুন বলেন, ‘দেখুন কলকাতার শিল্পীরা নিয়মিত মঞ্চে পারফর্ম করেন। তাতে তাদের দর্শকপ্রিয়তা কিন্তু কমে যায় না। আমাদের দেশেও এখন অনেকেই স্টেজ পারফর্ম করছেন। যারা বেশি নাক সিটকিয়েছেন তারাই এখন মঞ্চে পারফর্ম করছেন।’

ঢালিউডে একটি ঝড়ের নাম মুনমুন। আলোড়ন তুলেছিলেন রূপ আর খোলামেলা সাহসিকতায়। ১৯৯৬ সালে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় তার। ক্যাপ্টেন এহতেশাম পরিচালিত ‘মৌমাছি’ সিনেমায় প্রথম কাজ করেন। বর্তমান সময়ের দেশসেরা নায়ক শাকিব খানের প্রথম ব্যবসাসফল সিনেমার নায়িকাও ছিলেন মুনমুন। সিনেমাটির নাম ‘বিষে ভরা নাগীন’

Check Also

বুবলীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না?

শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। এই জুটির বক্স …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *