Home / মিডিয়া নিউজ / যে কারণে দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হলেন কাজী মারুফ

যে কারণে দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী হলেন কাজী মারুফ

২০০২ সালে ‘ইতিহাস’ সিনেমার মাধ্যমে ঢালিউডে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। পরিচালনায়

ছিলেন তার বাবা বরেণ্য অভিনেতা ও নির্মাতা কাজী হায়াৎ। সিনেমাটি সফল হয়েছিল, তিনিও

পেয়েছিলেন জনপ্রিয়তা। এমনকি সেরা অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও জিতে নেন।

এরপর আরও বহু সিনেমায় অভিনয় করে নিজের আলাদা অবস্থান তৈরি করে নেন।

বলছি চিত্রনায়ক কাজী মারুফের কথা। একসময়ের তুমুল ব্যস্ত এই নায়ক এখন সিনেমায় কাজ করেন না। স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন সুদূর যুক্তরাষ্ট্রে। দেশ ছেড়ে মার্কিন মুলুকে স্থায়ী হয়েছেন কী কারণে? প্রবাসে কেমনই বা আছেন তিনি? এসব প্রশ্ন ঘুরপাক খায় দর্শকের মনে।

এবার মারুফ নিজেই দিলেন জবাব। যুক্তরাষ্ট্রে থেকে লাইভে এসে ভক্তদের সঙ্গে আলাপ করেছেন, জানিয়েছেন তার অবস্থা সম্পর্কে। হাজার হাজার ভক্ত কেবল জানতে চেয়েছেন, তিনি কেমন আছেন? জবাবে মারুফ শুধু বলেছেন, ‘আমি ভালো আছি’।

সিনেমা ছেড়ে, দেশ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কারণ জানিয়ে কাজী মারুফ বলেন, “বাংলাদেশে সিনেমা হচ্ছিল না। তেমন কাজ ছিল না। কিন্তু কিছু তো করে খেতে হবে। তা ছাড়া আমাদের ‘ছিন্নমূল’ সিনেমাটি ১৪ ফেব্রুয়ারি মুক্তির কথা ছিল। সেভাবেই টার্গেট করেছিলাম। কিন্তু সিনেমাটি মুক্তি দিতে দেয়নি একটি বড় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। পরিচালক ছিলেন আমার আব্বা। তারা আমার আব্বাকে বলেছিলেন, আমরা রিলিজ করতে না দিলে কীভাবে রিলিজ করবেন। আমার আব্বার মতো মানুষকে এই কথা শুনতে হয়েছিল। সেদিন আব্বা বাসায় এসে বললেন, আমি এই বয়সে যুদ্ধ করব? আমি চাই না তুমিও যুদ্ধ করো এদের সঙ্গে। চলে যাও আমেরিকা। এসব কারণেই বাংলাদেশ ছেড়ে চলে এসেছি।’’

Check Also

নায়িকা হওয়ার জেদ: ১৫ বছর ঘর ছাড়া, জমি বিক্রি করে বানালেন সিনেমা

সিনেমার শীর্ষ নায়িকা হবেন বলে ছোটবেলায় চট্টগ্রামের আনোয়ার এলাকার বাড়ি ছেড়েছিলেন সুলতানা রোজ নিপা। প্রতিজ্ঞা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.