Home / মিডিয়া নিউজ / যাকে দেখতে জিমে যেতেন সামান্থা

যাকে দেখতে জিমে যেতেন সামান্থা

ছেলেরাই এ কাজগুলো করেন তা নয়। মেয়েরাও করেন। কোনো ছেলেকে এক ঝলক দেখার জন্য মর্নিং

ওয়াক করতে যেতে পারেন কোনো মেয়ে। ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠতে পারেন তিনি। এমনকি, জিমে

যেতেও শুরু করতে পারেন। আগেকার দিনের মতো প্রেয়সীর একঝলকের জন্য গলির মোড়ে দাঁড়িয়ে

থাকা প্রেমিকের জায়গায় থাকতে পারেন প্রেমিকাও। এমন ঘটনার কথাই স্বীকার করেছিলেন অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু। বহুদিন আগে ইনস্টাগ্রামে ‘আস্ক মি এনিথিং’ সেশনে এক অনুরাগীর প্রশ্নের উত্তরে সামান্থা বলেছিলেন, “তিনি জিমে যাওয়া শুরু করেছিলেন ‘চ্যা’কে এবার দেখবেন বলে!”

কে এই ‘চ্যা’? সামান্থার সাবেক স্বামী অভিনেতা নাগা চৈতন্য। চিরকালই বোল্ড এবং বিউটিফুল সামান্থা। তার ও নাগার কোর্টশিপের সময়টা ছিল অনুরাগীদের কাছে আলোচনার বিষয়। তাদের একসঙ্গে দেখতে পছন্দ করতেন দর্শক। ফলে গত বছর তাদের বিবাহবিচ্ছেদের খবরে ঝড় বয়ে যায়। অনুরাগীরা মানতেই পারছিলেন না যে সামান্থা-নাগার নাম আর একসঙ্গে নেওয়া হবে না।

সারাজীবন একসঙ্গে থাকবেন এই অঙ্গীকার নিয়েই ২০১৭ সালে গোয়ায় বিয়ে করেছিলেন নাগা ও সামান্থা। হিন্দু ও খ্রিস্টান দুই প্রথা মেনেই বিয়ে করেন তারা। ভালোই চলছিল তাদের সংসার। কিন্তু ২০২১ সালে দুই তারকা সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা করেন, তারা আর একসঙ্গে পথ চলতে পারবেন না। এই নিয়ে ট্রোলিং কম হয়নি।

বিয়ে ভাঙার পর কাজে মনে দিয়েছেন সামান্থা। ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান’ সিজন টুতে সামান্থা গোটা ভারতের নজর কেড়েছিলেন। রোষের মুখেও পড়েছিলেন। তাকে ‘পুষ্পা : দ্য রাইজ’ ছবিতে একটি আইটেম ডান্স করতেও দেখা যায়। ভাইরাল তার পারফরম্যান্স। এরপর তিনি অভিনয় করবেন রোম্যান্টিক কমিডি ‘কাথুভাকুলা রেন্ডু কাদাল’ ছবিতে। বিজয় সেতুপতি ও নয়নতারাও রয়েছেন তাতে। ২০২২ সালের ২৮ এপ্রিল মুক্তি পাবে ছবিটি।

অন্যদিকে নাগাকে সদ্য অভিনয় করতে দেখা যায় সুপারন্যাচরাল ছবি ‘বঙ্গারাজু’তে। সেই ছবিতে রয়েছেন তার বাবা নাগার্জুনাও। বলিউডে ডেবিউ করেছেন নাগা। আমির খানের বহুপ্রতিক্ষিত ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’-এ রয়েছেন তিনি। এ বছরই অগস্ট মাসের ১১ তারিখ মুক্তি পাবে ছবিটি।

Check Also

নতুন ‘সংসার’ শুরু করলেন অপু বিশ্বাস!

বিনোদন ডেস্ক : এক দশকের ক্যারিয়ারে প্রায় ১০০টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন ‘ঢালিউড কুইন’ খ্যাত চিত্রনায়িকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *