প্রাথমিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিয়মিত ক্লাস হবে;

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তবে তা আগের মতো সীমিত আকারে চলবে। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (পলিসি ও প্রশাসন) মনীষ চাকমা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আজ সারাদেশের মাঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। সেখানে নতুন বছরে সীমিত আকারে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তার সঙ্গে আগের মতো নিয়মিত শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অভিভাবকদের কেউ করোনা আক্রান্ত হলে নিয়মিত সেই আপডেট পাঠাতে বলা হয়েছে। এ সভায় জেলার উপ-পরিচালক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা ও থানা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। তাদের মাধ্যমে প্রতিদিন স্কুলপ্রধানরা শিক্ষার্থীদের তথ্য পাঠাবেন। পঞ্চম শ্রেণিতে সপ্তাহে ছয়দিন এবং বাকিদের দুদিন করে ক্লাস হবে বলে জানান তিনি।

তবে প্রাক-প্রাথমিকে সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। একই সময়ে অনলাইনে ক্লাস চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এর আগে ১৭ মাস পর স্কুল-কলেজে ক্লাস চালু হয় গত বছরের ১২ সেপ্টেম্বর। কিন্তু আবারও করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

এদিকে মাধ্যমিকের শিক্ষার্থীদের টিকার ওপর জোর দিয়েছে সরকার। আশা করা হচ্ছে, ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ১২ বছরেরে ঊর্ধ্বে সব শিক্ষার্থী টিকার আওতায় আসবে। টিকা নিলে সশরীরে ক্লাস করতে পারবে বলে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *