Home / মিডিয়া নিউজ / বলিউডে আলো ছড়াচ্ছে বাংলাদেশের মনির

বলিউডে আলো ছড়াচ্ছে বাংলাদেশের মনির

মনির হোসেন মেকআপ ম্যান হিসেবে `খোঁজ দ্য সার্চ`, `সুইটহার্ট`, `আমার আছে জল`, `দ্য স্পিড`,

`মিশন আমেরিকা`, `সম্রাট, দ্য কিং ইজ হেয়ার` ছাড়াও আরো অনেক ছবিতে কাজ করেছেন। করেছেন

সাকিব আল হাসানের সাথেও কাজ। মনিরের মেকআপের জাদুতে এদেশের বড়মাপের তারকারা মুগ্ধ হয়েছেন।

আর সেভাবেই মনিরের কাজের কদর বাড়তে বাড়তে সীমানার গণ্ডি পেরিয়ে যায়। ক্রমাগত বলিউডের দিকে ঝুঁজকে পড়েছেন মনির।

সেখানেও তার কদর দিন দিন বেড়ে চলছে। বলিউডে মনির অনেক জনপ্রিয় অভিনেতাদের সাথে কাজ করেছেন। মেক আর্টিস্ট হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন অভিনীত পিকু ছবির সেটে। সেখানে ইরফান খানের পারসোনাল মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন। ওএমজি ছবিতে মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন অক্ষয় কুমার ও পরেশ রাওয়ালের সাথে।

এছাড়াও দেব ও কোয়েল মল্লিককেও মেক আপ দিয়েছেন বাংলাদেশের এই মেক আপ আর্টিস্ট। যৌথ প্রযোজনার ছবি ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’ তে অংকুশ ও শুভশ্রীর মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন। সবকিছু ছাপিয়ে আগামী ডিসেম্বরে সানি লিওনের মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে যোগ দিতে মুম্বাইয়ের উদ্দেশ্যে উড়াল দিচ্ছেন।

বলিউড আর্টিস্টদের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? জানালেন বলিউড উপমহাসদেশে চলচ্চিত্রের একটা বড় প্ল্যাটফরম। সেখানে সবচেয়ে পরীক্ষিত ব্যক্তিদের কাজের সুযোগ দেওয়া হয়। সেই হিসেবে আমি সুযোগ পেয়েছি এটা স্বাভাবিক ভাবেই আমার কাছে একটা বড় পাওয়া। তারা হয়তো মনে করেছে আমি ভালো কাজ করেছি কিংবা করছি এজন্য তারা মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে আমাকে পেতে চেয়েছে।

মনির বলেন, পিকু ছবির সেটে আমাকে ইরফান খান পারসোনাল মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবে নিয়েছেন। আমি শুধু ইরফান খানের মেক আপ আর্টিস্ট হিসেবেই কাজ করেছি। তবে সেটের অভিনেতারা আমার কাজের প্রশংসা করেছেন। এটা আমার এচিভমেন্ট।

সানি লিওনের মেক আর্টিস্ট হিসেবে কবে কাজ করতে যাচ্ছেন মনির? মনির হোসেনের বন্ধু অলক দত্ত শাহরুখ খানের মেকআপ আর্টিস্ট হিসেবে কাজ করেন। অলকের মাধ্যমেই সানি লিওনের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ তৈরি হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরেই মুম্বাই যাচ্ছি।

Check Also

বুবলীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না?

শাকিব খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। এই জুটির বক্স …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *